লিসবন যাচ্ছি

আজকে রবিবার। ছুটির দিন। তারপরও কাল পর্তুগালের রাজধানী লিসবন যাচ্ছি বলে হাতের কিছু কাজ সারতে বিকেল বেলা ল্যাবে গেলাম।


গণতান্ত্রিক দেশে মানুষ আন্দোলন কেন করে?

কারণ আন্দোলনের মাধ্যমেই একমাত্র জনগণের মনের কথা জানা যায়।

মিডিয়ায় কথা বলা, টকশো, সরকারকে স্মারকলিপি প্রদান এগুলোর মাধ্যমেও আমরা আমাদের নিজেদের ইচ্ছা সরকারকে জানাতে পারি। তবে সেটা সাধারণত মুষ্টিমেয় লোকের ইচ্ছার কথা। ইস্যুর ভিত্তিতে সমষ্টীগত জনগণের ইচ্ছা প্রকাশের একটাই উপায়। আর সেটা হল আন্দোলন।


নিজেই নিজের পুলিশ ও বিচারক

গতমাসে জার্মানির বার্লিন শহরে গিয়ে একটা বিষয়ে আমি বেশ অবাক হয়ে গিয়েছিলাম।

শহরের কোন বাস, ট্রেন বা ট্রামে টিকেট চেক করা হয়না। কিন্তু মেশিন থেকে নিজ দায়িত্বে টিকেট কিনে সবাই যানবাহনে ওঠে।

কোন সিকিউরিটি গার্ড নেই। কিন্তু সবাই সুশৃঙ্খল।


তরুণদের আন্দোলনের কারণঃ আশা ও হতাশা

কোটার আন্দোলন, নিরাপদ সড়কের আন্দোলন। তরুণদের এসব আন্দোলন শুধুমাত্র চাকরী পাওয়া বা একজন ড্রাইভার এর শাস্তির দাবী ভাবলে সেটা অনেক বড় ভুল হবে।

সত্যি বলতে আমরা তরুণরা অনেক হতাশাগ্রস্থ একটা সমাজে বেড়ে উঠেছি।


আন্দোলনঃ তারুণ্যের শক্তি

ওরা বাচ্চা না। ওরা শিশুও না। অনেক পূর্ণবয়স্ক মানুষের চেয়ে অনেক বেশি পরিণত।

সেটা ওদের আন্দোলনের ধরণেই সবাই টের পেয়ে গেছে আশা করি।

আমাদের সমাজের একটা বড় সমস্যা হল সঠিক বয়সে আমরা কাউকে কাজে লাগাই না।


বার্লিনে প্রথমবার

১। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকতে একবার শখ করে জার্মান ভাষা শেখা শুরু করলাম। বিকেলে আন্তর্জাতিক ভাষা শিক্ষা অনুষদে ক্লাস হত। কিছুদিনের মধ্যে বেশ কিছু শব্দ আর বাক্য বলা শিখে গিয়েছিলাম। এরপর ডিপার্টমেন্টের ক্লাস আর পরীক্ষার চাপে জার্মান ভাষা শেখা চালিয়ে যেতে পারিনি।


বিশ্বকাপ ফুটবল নিয়ে দুটি পর্যবেক্ষণ

বিশ্বকাপটা এবার একটু অন্যরকম। এমন একটা দেশে বসে বিশ্বকাপ দেখছি যারা নিজেরাই বিশ্বকাপে খেলছে। কিন্তু অবাক করা বিষয় হল বিশ্বকাপের কোন শোরগোল এখানে নেই।


সমন্বিত উদ্যোগ

কিছুদিন আগে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) মহাকাশে তাদের প্রথম স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করল। এই ঘটনায় দেশবাসী মোটামোটি দুই ভাগে ভাগ হয়ে যায়। এক ভাগ অনেক গর্বিত হয় আর একভাগ বলতে থাকে, এই টাকা তো অন্য খাতে ব্যয় করা যেত। গরীবের আবার স্যাটেলাইট!

সরকার কেন রকেট বানায় না

এই দশকের আগে পর্যন্ত রকেট প্রযুক্তি ছিল পুরোপুরি সরকারের হাতে। কিন্তু ধীরে ধীরে সেটা বেসরকারি কোম্পানির কাছে চলে যাচ্ছে। স্পেসএক্স এই ক্ষেত্রে অনেকটা বিপ্লব করে ফেলেছে। কারণ তাদের রকেট অনেক সস্তা। সম্ভবত ৫০ মিলিয়ন ডলার (স্মৃতি থেকে লিখছি, ভুলও হতে পারে) হলেই তাদের রকেট ভাড়া করা যায়।



কোটা, মুক্তিযুদ্ধ, নারীবাদ ও স্থানীয় উন্নয়ন

অনেকে কোটা বিরোধীতাকে মুক্তিযুদ্ধ বা নারীবাদের শত্রু হিসেবে দেখছেন। কিন্তু সবার বুঝতে হবে, চাকরিতে কোটা সিস্টেমে অনেক মৌলিক সমস্যা আছে যার সাথে মুক্তিযুদ্ধ বা নারীবাদের কোন সম্পর্ক নেই।

কোটা

কোটা থাকতে পারে সুযোগের ক্ষেত্রে, সুবিধার ক্ষেত্রে নয়। অর্থাৎ প্রত্যেকটি শিশু যেন সমান সুযোগ পায় বেড়ে ওঠার। কিন্তু সে যদি সুযোগ পেয়েও নিজেকে গড়ে তুলতে না পারে তার দায় রাষ্ট্রের নয়।

স্টিফেন হকিংঃ একজন সাহসী অভিযাত্রীর প্রস্থান

তখন সম্ভবত ক্লাস সেভেনে পড়ি। ২০০২ সালের কথা। ভাইয়ার কাছে শুনেছিলাম পৃথিবীর সেরা বিজ্ঞানী নড়াচড়া করতে পারেনা। শুধুমাত্র একটা আঙ্গুল নাড়িয়ে হুইল চেয়ারের সাহায্যে চলাফেরা করে। বিষয়টা আমাকে অনেক ভাবিয়েছিল। আমি সুস্থ সবল মানুষ হয়েও কিছু করতে পারি না আর কেউ কিনা পক্ষাঘাতগ্রস্থ শরীর নিয়েও সেরা বিজ্ঞানী! একারণে তার সমন্ধে আমার আগ্রহ তৈরি হয়। বিজ্ঞানীটির নাম স্টিফেন হকিং। বিখ্যাত পদার্থবিজ্ঞানী।

রুবিন

প্লেনে যাত্রা করার সময় আমি সচরাচর আশেপাশের যাত্রীর সাথে কথা বলি না। কিন্তু এনাহাইম থেকে ডেনভার যাওয়ার পথে তার ব্যতিক্রম ঘটল।
ফ্যালকন হেভি

ফ্যালকন হেভি

আজকের দিনের একটা খবর নিয়ে আমি বেশ উত্তেজিত। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় রকেটটি আজ সন্ধ্যায় (যুক্তরাজ্যের সময়, বাংলাদেশ সময় রাত ১২ঃ৩০) উৎক্ষেপণ করা হবে।