টেলিভিশন, বিদেশি চ্যানেল ও হিন্দি

টেলিভিশন এখন আর তেমন একটা দেখা হয়না। গত সপ্তাহের কোন একদিন ব্যাপারটা প্রথমবারেরমত খেয়াল করলাম। তাই সেদিন বাসায় ফিরেই ল্যাপটপে বিবিসি আইপ্লেয়ারে বিবিসি নিউজ চ্যানেলটি ছেড়ে দিয়ে সন্ধ্যার কাজকর্ম শুরু করলাম। কাজের মাঝে মাঝে টিভি দেখা।

ঘটনাবহুল মাস

গত একমাসে এত কিছু হয়ে গেছে যে ৩০ দিন আগে পৃথিবী যেমন ছিল এখন তার থেকে অনেক আলাদা।

ঢাকায় জঙ্গি হামলা

গত বছর নভেম্বরে প্যারিস শহরের একেবারে প্রাণকেন্দ্রে হামলা করেছিল আইএসের জঙ্গিরা। ঘটনার পরদিন আমার ফ্রান্সের বন্ধুকে জিঞ্জেস করেছিলাম এখন প্যারিসের অবস্থা কি? তোমার পরিবারের সবাই ঠিক আছে তো? ও বলেছিল, "আমার এক আত্মীয় মারা গেছে। তবে শহরের অবস্থা স্বাভাবিকই আছে। এমন হামলাতেও প্যারিসের লোকদের জীবনে কোন প্রভাব আসবে না। তারা আগের মতই আমোদ ফূর্তি করতে থাকবে। প্যারিস জানে জীবন কিভাবে যাপন করতে হয়।" আমি আবার জিঙ্গাস করেছিলাম, তুমি ও তোমার পরিবার কি এতে আতংকিত? ও তখন বলেছিল, "সন্ত্রাসিরা তো এটাই চায়। সবাইকে আতংকিত করতে। সুতরাং আমরা ভয় পাওয়া মানে তারা জিতে গেল। তাই ভয় পাওয়ার কোন মানে হয়না। এমন হামলার পরেও স্বাভাবিক জীবন চালিয়ে যাওয়াই তাদের মনোবল ভেঙ্গে দেওয়ার একমাত্র উপায়।" কথাটা একদম সত্যি। আমাদের দেশে জঙ্গি হামলার পরও একই কথা প্রযোজ্য।

বাসা বদল

১ বছরের ভিতর পঞ্চমবারের মত বাসা বদলের রেকর্ড করে ফেললাম আজকে।

ব্রিটেনে এসে প্রথম উঠেছিলাম হেডিংটনে। সেখান থেকে অক্সফোর্ডের দূরত্ব প্রায় চার কিলোমিটার। তাই কলেজ যখন একোমোডেশন অফার করল দেরী না করে সাথে সাথে বাসা বদলে কলেজের একোমোডেশনে উঠে গেলাম।